গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকা

গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকা সমূহ জেনে নিন!

লাভজনক হওয়ায় আমাদের দেশে ব্যাপকহারে গাভী পালন করতে দেখা যায়। তবে গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকা সম্পর্কে অনেকের সঠিক ধারণা নেই৷ যার কারণে অনেকেই কঠোর পরিশ্রম করা স্বত্তেও লাভের মুখ দেখতে পারে না।

আজকের ব্লগে আপনাদের জানাবো কিভাবে আপনি সঠিক উপায়ে গর্ভবতী গাভী কে খাদ্য দিবেন। তাছাড়া ও বাচ্চা জন্ম দেয়ার পর গর্ভবতী গাভীকে কোন কোন খাবার গুলো খাওয়াবেন সেই ব্যাপারে ও এখানে উল্লেখ করা হয়েছে।

গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকা

যেসব খাবার গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকায় রাখবেন?

সহজপাচ্য খাবার

মনে রাখবেন ফিড গর্ভবতী গাভীর জন্য উপযুক্ত কোন খাবার নয়। তাই গর্ভবতী গাভীকে ফিড খাওয়াবেন না। গর্ভবতী গাভীকে সহজে হজম হয় এমন খাবার অর্থাৎ সহজপাচ্য খাবারগুলো দিন। মনে রাখবেন এই ধরণের খাবার মানেও পুষ্টিকর। 

সবুজ ঘাস

মনে রাখবেন সবুজ বা কাঁচা ঘাসের কোন বিকল্প নেই। যদি আপনি গাভীর পুষ্টি চাহিদা পূরণ করতে চান তাহলে সবুজ ঘাস খুবই জরুরি। গরুকে কাঁচা ঘাস খাওয়ানোর মাধ্যমে আর্থিক দিক থেকে ও অনেকাংশে লাভবান হওয়া যায়।

আর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মনে রাখবেন, গর্ভবতী গাভী বাচ্চা জন্মদানের পূর্বে শেষ তিন সপ্তাহের মধ্যে ৫০-৬০% লিগিউম যুক্ত সবুজ নমনীয় ঘাসের পরিমাণ আস্তে আস্তে গাভীর খাদ্য তালিকায় বাড়াতে হবে। গরুর রোগ ও চিকিৎসা সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন!

রেশন

রেশন বলতে এক দিনে গাভী কে যতটুকু খাবার দিতে হয় সেই পরিমাণ কে বুঝায়। ভুলে যাবেন না রেশন গাভীর পর্যাপ্ত পুষ্টি সরবরাহের ক্ষেত্রে খুবই জরুরি । রেশনের ক্ষেত্রে দুটি বিষয় মনে রাখবেন একটি হচ্ছে DCP & অন্যটি TDN। DCP বলতে (Digestible Crude Protein) বুঝানো হয়। আর  TDN বলতে (Total Digestible Nutrients) বুঝানো হয়। মনে রাখবেন DCP এর পরিমাণ হবে ১৬-১৮% এবং TDN এর পরিমাণ হবে ৭০%।

বাচ্ছা জন্ম দেয়ার গাভীকে কি খাবার দিবেন?

গর্ভবতী গাভী বাচ্ছা প্রসব দেয়ার পর কি খাবার দিতে হয় সে সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। শুরুতে আপনি দেড় কেজি গমের ভুষি, আধাকেজি চিটাগুড় এবং ৫০ গ্রাম লবন নিবেন। এরপর একটি ঘামলা বা বালতিতে হালকা গরম পানির সাথে মিশিয়ে সেগুলো গাভীকে খেতে দিবেন। এই ধরনের খাবার গাভীর গর্ভফুল তাড়াতাড়ি পড়ে যেতে সাহায্য করে

আপনি চাইলে হালকা গরম পানিতে শুধৃুমাত্র ঝােলাগুড় মিশিয়েও গাভীকে খাওয়াতে পারবেন।  মনে রাখবেন এসময় আপনাকে গাভীর বাচ্চার জন্য অনেক সতর্ক হতে হবে। সাধারণত বাচ্চা জন্ম দেয়ার ঘণ্টা দুয়েক পরপর গাভী খাবার খাওয়া শুরু করে। . 

একটি গাভী যখন গর্ভবতী হয় তখন ঐ গাভীটিকে একটু বিশেষ ভাবে যত্ন নিতে হয়। যেমন গাভীর খাদ্য প্রদান,  গাভীর গোসল, গাভীর থাকার জায়গা ইত্যাদি বিষয়। গর্ভবতী গাভীকে খাদ্য প্রদানে যেসব বিষয় গুরুত্ব দিতে হবে সে বিষয়গুলো আমাদের অনেকেরই জানা নেই। গরু পালনে লাভবান হওয়ার জন্য বাচ্চা উৎপাদন করার বিকল্প নেই।

শেষকথা

মনে রাখবেন গর্ভবতী গাভীর খাবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তাই গর্ভবতী গাভীর খাদ্য তালিকা সম্পর্কে যত্নশীল হওয়াটা খুবই জরুরি। গরুর কোন রোগের কি ঔষধ জেনে নিন!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top